ছাগল কেন ‘ছাগোল’ নয়? পাগল কেন ‘পাগোল’ নয়?

‘গোরু’ বানানটি আরও বেশ কয়েকটি মজার প্রশ্ন উসকে দিয়েছে। এ-রকমই দুটো প্রশ্নের সমাধান আজ খুঁজবো। চলুন, শিখে নেওয়া যাক। ছাগল কেন ‘ছাগোল’ নয়? ‘ছাগল’ শব্দটির বিশ্লেষণ হলো, ‘ছগল + অ’। প্রকৃতি-প্রত্যয়ের নিয়মানুসারে, প্রত্যয় যুক্ত হলে সাধারণভাবে প্রকৃতির শুরুর স্বরধ্বনি পরিবর্তিত হয়। এখানে শেষে অ-প্রত্যয় যুক্ত হওয়ার ফলে প্রকৃতি ‘ছগল’ এর শুরুর ‘ছ’ পরিবর্তিত হয়ে ‘ছা’ …

Read More

গরু যদি ‘গোরু’ হয়, তরু কেন ‘তোরু’ নয়?

আমরা ইতোমধ্যেই ‘গোরু’ বানানটির ব্যাপারে জেনেছি। অনেকেরই ধারণা, কেবল উচ্চারণের ওপর ভিত্তি করেই বানানটি ‘গরু’ থেকে ‘গোরু’-তে রূপান্তরিত হয়েছে। যদিও এ ধারণা সঠিক নয়, তথাপি কিছু প্রশ্ন চলে আসে এ-রকম: তরু কেন ‘তোরু’ হবে না? মরু কেন ‘মোরু’ হবে না? সরু কেন ‘সোরু’ হবে না? চলুন, এর কারণটা জেনে নেওয়া যাক। শব্দগুলোর বিশ্লেষণ: ১. গোরু: …

Read More

‘শীতাতপ’, না-কি ‘শীততাপ’?

অনেকেরই ধারণা- শব্দটি আসলে ‘শীততাপ’। এ ধারণার পেছনে একটি কারণ সম্ভবত এই যে, ‘শীত’ ও ‘তাপ’ দুটোই অর্থবোধক শব্দ। কিন্তু প্রকৃত ব্যাপারটা কি তা-ই? চলুন শিখি। প্রকৃতপক্ষে শব্দটির শুদ্ধ বানান হচ্ছে ‘শীতাতপ’।বিশ্লেষণ: শীত+আতপ।অর্থ: শীত ও গ্রীষ্ম, শৈত্য ও উষ্ণতা।ব্যাখ্যা: ‘শীতাতপ’ বলতে মূলত ‘শীতলতা ও উষ্ণতা’ বোঝায়। এখানে ‘শীত’ শব্দটি দ্বারা শীতলতা বোঝাচ্ছে; অপরদিকে ‘আতপ’ শব্দটির …

Read More

‘বিপদ’ কখন ‘বিপৎ’ হয়?

‘বিপদ’ শব্দটির একটি মজার ব্যাপার হচ্ছে, সন্ধির নিয়মে কোনো শব্দের পূর্বে যুক্ত হলে সেটা বেশিরভাগ সময়ই আর ‘বিপদ’ থাকে না। কীভাবে ঘটে? চলুন দেখি। লক্ষণীয় ১: সন্ধির নিয়মে ‘বিপদ্’ শব্দটির পরে ‘জ’ যুক্ত হলে ‘বিপজ্’ হবে।উদাহরণ ও ব্যাখ্যা:বিপদ্ + জনক = বিপজ্জনক। যেহেতু এখানে ‘বিপদ্’-এর পরে ‘জ’ বর্ণ দ্বারা গঠিত (জনক) শব্দ যুক্ত হয়েছে, তাই …

Read More

‘সঠিক’ কি ভুল শব্দ?

এ প্রশ্নটি অত্যন্ত বিব্রতকর। কেননা ‘সঠিক’ শব্দটি সকল নির্ভরযোগ্য বাংলা অভিধানেই অন্তর্ভুক্ত থাকার পরও কেউ কেউ বলতে চান- ‘সঠিক’ শব্দটি ভুল। তাদের মতে, ‘ঠিক’ শব্দটির সঙ্গে ‘স’ উপসর্গ যুক্ত হয়ে একটি বাহুল্য দোষ সৃষ্ট হয়েছে। আসলেই কি তা-ই? চলুন, দেখা যাক। ঠিক:এ শব্দটি এসেছে সংস্কৃত মূল ‘স্থিত’ থেকে। বিবর্তনটি ঘটেছে এভাবে: স্থিত > ঠিঅ > …

Read More

কেন বনাম কেনো

এ দুটো শব্দ সম্পূর্ণ ভিন্ন দুটো অর্থে ব্যবহৃত হয়ে থাকে। উচ্চারণগত দিক থেকেও শব্দ দুটো আলাদা। তার পরেও অনেকেই এদেরকে গুলিয়ে ফেলেন। চলুন, শিখে নেওয়া যাক। কেন:এ শব্দটির উচ্চারণ হবে ‘ক্যানো’।এটি একটি প্রশ্নসূচক অব্যয়। এর অর্থ- কী জন্য, কী কারণে।উদাহরণ:১. তুমি কাজটি করোনি কেন?২. কেন আজ পড়তে বসোনি? কেনো:এ শব্দটির উচ্চারণ হবে ‘কেনো’।এর অর্থ- ক্রয় …

Read More

ভাবি বনাম ভাবী

‘ভাবি’ ও ‘ভাবী’-কে নিয়ে সমস্যায় পড়েন না এমন মানুষ কমই আছেন। ভাবাভাবি বাদ দিয়ে, চলুন শিখে নিই দ্রুত। ভাবি:এ শব্দটি দু-রকম অর্থে ব্যবহৃত হতে পারে।১. ক্রিয়া (কাজ) অর্থে: ভাবনা করি।যেমন: আমি অহর্নিশ তোমার কথাই ভাবি।২. বিশেষ্য পদ হিসাবে: ভাইয়ের স্ত্রী।যেমন: ইনি আমার বড়ো ভাবি। ভাবী:এ শব্দটির বিশ্লেষণ হলো: √ভূ + ইন্এর অর্থ- ভবিষ্যতে হবে এমন।যেমন: …

Read More

‘চীন’ কেন ‘চিন’ নয়?

অনেকেই প্রশ্ন করে থাকেন- ‘চীন’ একটি বিদেশি শব্দ হওয়া সত্ত্বেও কেন এ শব্দটির বানানে ঈ-কার হবে? কেননা আধুনিক বাংলা বানানের নিয়মানুসারে- বিদেশি শব্দের বানানে ঈ- কার লেখা যাবে না।বলার অপেক্ষাই রাখে না যে, এ যুক্তিতে ‘শ্রীলঙ্কা’ বানানটিও বাতিল হয়ে যায়।চলুন, বিষয়টি একটু বিশ্লেষণ করা যাক। মনে রাখতে হবে: দেশের নাম হলেই সেটা বিদেশি শব্দ নয়। …

Read More

কোন, কোণ, কোনো

প্রায় একই রকম দেখতে এ শব্দগুলোর ব্যবহার নিয়ে আজকে আমাদের আলোচনা। ‘কোন’-এর ব্যবহার:এটি একটি প্রশ্নবোধক সর্বনাম। কী, কে, কোনটি, কী প্রকারে, কীভাবে, কীসে ইত্যাদি প্রশ্ন করতে এ শব্দটি ব্যবহৃত হয়।উদাহরণ:কোন কথা? (‘কী’ অর্থে)কোন ছেলেটি প্রথম হয়েছে? (‘কে’ অর্থে)কোন দোকানে যাবে? (‘কোনটি’ অর্থে)কোন উপায়ে কাজটি করবে? (‘কীভাবে’ অর্থে)কোন ক্ষেত্রে তোমার দক্ষতা আছে? (‘কীসে’ অর্থে) ‘কোণ’ (কোনা)-এর …

Read More

ঙ্গ বনাম ঙ

কোথায় ‘ঙ্গ’ ব্যবহার করতে হবে, আর কোথায় ‘ঙ’ ব্যবহৃত হবে- এটি একটি বহুল জিজ্ঞাসিত সমস্যা। এ সমস্যাটির সমাধানে দুটো বিষয় মাথায় রাখতে হবে। চলুন, শিখি। ১. প্রত্যয়যোগে তৈরি হওয়া শব্দে অনেক সময়ই ‘ঙ’ ব্যবহৃত হয়।উদাহরণ ও ব্যাখ্যা: ভাঙা = √ভন্জ্ + আ। এখানে ‘ভাঙা’ শব্দটি ‘আ’ প্রত্যয়যোগে তৈরি হয়েছে বলে এর বানানে ‘ঙ্গ’ না হয়ে …

Read More